সেলিব্রেটিদের ক্রিকেট লিগ (সিসিএল) স্থগিত

৫১

বিনোদন ডেক্সঃ

মারামারির কোন ঘটনা নেই তবুও আবার স্থগিত সেলিব্রেটিদের ক্রিকেট লিগ (সিসিএল)। সেমিফাইনাল পর্যন্ত দু’দলে নিয়মবহিভূর্ত দুজন খেলোয়াড়ের অন্তর্ভুক্তির কারণে মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) সেলিব্রিটি ক্রিকেট লিগ বন্ধ হয়েছে। আবার কবে খেলা শুরু হবে এ বিষয়ে বুধবার (১৮ অক্টোবর) পর্যন্ত কিছুই জানা যায়নি। বিশ্বকাপে খেলতে যাওয়া জাতীয় দলকে উৎসাহ দেওয়ার লক্ষ্য থেকেই মূলত তারকাদের খেলার আয়োজন করা হয়েছিল। মারামারি ও হাতাহাতির ঘটনা কাটিয়ে ১৮ দিন পর নেমেছিল সেলিব্রেটি ক্রিকেট লিগ। কিন্তু মঙ্গলবার সকালে শুরু হয়ে সে খেলা আবারও রাত দেড় টায় বন্ধ হয়ে যায়। জানা যায়, ১৮ দিন পর মাঠে সিসিএল এর সব খেলা ১দিনের মধ্যেই শেষ করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু খেলা ফাইনাল পর্যন্ত পৌঁছেনি। সেমিফাইনালে জিতে ফাইনালে পৌঁছেছিল সালাউদ্দিন লাভলু ও নির্মাতা দীপঙ্কর দীপনের দল। কিন্তু ফাইনালের আগেই আবারও বন্ধ হয়ে গেছে তারকাদের নিয়ে আয়োজিত সেলিব্রেটি ক্রিকেট লিগ।

সেলিব্রেটিদের ক্রিকেট লিগের নিয়ম অনুযায়ী, করপোরেট লিগে খেলেছে এমন কেউ লিগে খেলতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। সালাউদ্দিন লাভলুর দলের হয়ে রাব্বি এবং দীপঙ্কর দীপনের দলের হয়ে রাব্বী ও অন্তু নামে দুই অভিনেতা মাঠে নামেন। উনারা এর আগে করপোরেট লিগের হয়ে খেলেছিলেন। বিপক্ষ দল তা মেনে না নেওয়ায় খেলা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেলিব্রেটি ক্রিকেট লীগের আয়োজক কমিটির সদস্য মাসুদুর রহমান বলেন, আগে থেকেই বলা ছিল যারা করপোরেট লিগে খেলেছেন তারা এ লিগে খেলতে পারবেন না। আমাদের এই বিষয়ে কিছু জানা ছিলনা। এর আগে পরস্পরের সাথে সেমিফাইনালের পূর্বেই বেশ অনেকক্ষণ ঝামেলা করেছে দলগুলো। তারপর একটা মীমাংসায় এসে সেমিফাইনাল শেষ হয়। এরপরেই দলগুলো কে কত সালে কোথায় খেলেছে সেসব নথি হাজির করে। ফাইনালে দু’দলের অভিযোগের কারণে খেলা বন্ধ করতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। মাসুদুর রহমান বলেন, ‘আমরা আয়োজক হিসেবে চেষ্টা করেছি শেষ পর্যন্ত খেলা হোক কিন্তু আপাতত সেটা হচ্ছে না। এর মধ্যে আমাদের কিছু ব্যর্থতাও হয়তো রয়েছে। আমরা সেটা মেনে নিচ্ছি। পরে কোন এক সময় ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হতে পারে।

এছাড়াও মঙ্গলবার মাঠে আসেননি রায়হান রাফির দল। তবে, বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ২৯ সেপ্টেম্বর খেলা চলাকালীন অকাঙ্ক্ষিতভাবে ৫ খেলোয়াড়সহ যারা যারা সংযুক্ত ছিলেন তাদের অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। যাদের অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে তারা হলেন চিত্রনায়ক শরিফুল রাজ, পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নিয়ামূল, মোহন আহমেদ অভিনেত্রী রাজ বিপা এবং সোহাগ রানা আরো বেশ কয়েকজন। অবশ্য রাজরিপা দাবি করেছেন তিনি আগেই আয়োজকদের বয়কট করেছেন। প্রসঙ্গত, ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে নির্মাতা কামাল রাজ ও দীপকর দীপনের খেলা চলাকালীন মাঠে থাকা দুই দলে মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার খেলা শুরু হয়। ম্যাচ শেষে আবার উত্তেজিত হয়ে পড়লে দুই দলের খেলোয়াররা এক পর্যায়ে মারামারি ও হাতাহাতি শুরু করে। এই ঘটনার পরদিন ৩০ সেপ্টেম্বর সোমবার সম্মেলনে জানানো হয় অক্টোবর মাসের মধ্যেই খেলার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। তবে সিসিএল এর কর্তৃপক্ষরা খেলা কবে হবে তা এখনও নিশ্চিত করেননি।

100% LikesVS
0% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.