“সেবক বন্ধু” স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের হটলাইনে জরুরি ঔষধ সেবা

২১

মোঃ নাঈম রহমান,লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি: করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলেছে লকডাউন। লকডাউনে মানুষ যখন ঘরবন্দী, ঠিক এমনই সময় ঔষধের জন্য বের হতে হচ্ছে অনেককেই। সকল শ্রেনী পেশার মানুষকে সরকারের নির্দেশনা মানতে এবং মহামারী এই ভাইরাসের সংক্রামন এড়িয়ে ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে গৃহবন্দী দুস্থ ও অসহায় মানুষের সাহাযার্থে জীবন রক্ষাকারী ঔষধ বাড়ী বাড়ী পৌছে দিচ্ছেন হটলাইন নাম্বারে ফোন দিয়ে ঔষধের নাম অথবা প্রেসক্রিপশন এর তুলে পাঠিয়ে এবং ঠিকানা বললেই সেবক বন্ধু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এর নিজস্ব খরচে সরকার নির্ধারিত মুল্যেই বাড়িতে গিয়ে প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী ঔষধ পৌঁছে যাচ্ছে। এজন্য বাড়তি খরচও গুনতে হচ্ছে না ক্রেতাদের।

“সেবক বন্ধু” স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান মোঃ মশিউর রহমান ইসাদ জানান করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অনেক অসহায় মানুষ ঘরের বাইরে বের হয়ে জীবন রক্ষাকারী ঔষধ সংগ্রহ করতে পারছে না। তাই এ দুর্যোগময় সময়ে অসহায় মানুষের দোড়গোড়ায় অন্ততপক্ষে জীবন রক্ষাকারী ঔষধ পৌছে দেয়ার সুবিধার্থে এ ধরনের মহতী উদ্দোগ গ্রহন করেছে।

আমরা আপাতত লালমনিহাট শহরে সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত এই সার্ভিস দিবো। পর্যায়ক্রমে রংপুর ও কুড়িগ্রামে আর্থিক সংগতি বাড়লে এটা আরো বর্ধিত করবো।

তিনি এ ধরনের পরিস্থিতিতে তাদের সেবা নিতে আগ্রহীদের প্রয়োজনে 01704375819 নাম্বারে যোগাযোগ এবং একই নাম্বারে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে পাঠিয়ে তাদের সেবা নেয়ার অনুরোধ জানান। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সংগঠনের পক্ষ থেকে এ ধরনের সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

করোনা মহামারির প্রথম ধাপে সেবক বন্ধু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন রংপুর সহ বিভিন্ন জেলার স্বেচ্ছাসেবক প্রায় ৫০/৬০ জন সেবক বন্ধুর হয়ে ফ্রিতে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ ও গুরুত্বপূর্ণ সকল রাস্তা, থানা, মুদি, ঔষধের দোকানে স্প্রে করেছেন এবং অসহায়, দুস্থ ও কর্মহীন মানুষের হাতে পৌঁছে দিয়েছে ত্রাণ সহায়তা। সেবামূলক কার্যক্রমের সঙ্গে গত ২ বছর থেকে আছেন

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.