ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে পন্ড

২৯

এম,এ মামুন (ডেস্ক রিপোর্টার): দেশের বিভিন্ন জায়গায় ঘটে আসছে প্রতিনিয়ত বাল্যবিবাহের মতন অপ্রিয়কর ঘটনা, সোচ্চার আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও বিভিন্ন গণমাধ্যম কিন্তু কে শুনছে কার কথা! সরকারি আইনের তোয়াক্কা না করে পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায় গতকাল সোমবার ৮ ফেব্রুয়ারী নুর আলা নুর ইসলাম দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির মাদ্রাসার ছাত্রী বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মিরুখালী কলেজের একাদশ শ্রেণির দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও মজিবুর রহমান গাজীর ছোট ছেলে সুমন গাজীর সাথে দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন চলছিল। বিষয়টি স্থানীয় লোকজন সাংবাদিক ইসরাত জাহান মমতাজকে অবহিত করলে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেন। পরে সোমবার দুপুরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আকাশ কুমার কুন্ডু, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনিকা আক্তার ও সাংবাদিক ইসরাত জাহান মমতাজ পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। এসময় তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে বর যাত্রি পালিয়ে যায়।

ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে মেয়ের মা তাছলিমা বেগম ও ছেলের বোন পাপিয়া বেগমকে দুই হাজার টাকা করে মোট ৪ হাজার টাকা জরিমানা করেন। ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত ওই মেয়েকে বিবাহ না দেয়ার শর্তে মুচলেকা রেখে ছেড়ে দেন।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আকাশ কুমার কুন্ডু বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.