মোংলা পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে ২ নং ওয়ার্ডে উঠান বৈঠক অনুষ্টিত

মোঃ মাসুদ পারভেজ, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ- বাগেরহাটের মোংলা পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে ২ নং ওয়ার্ডে উঠান বৈঠক অনুষ্টিত হয়েছে। রবিবার ( ৩ জানুয়ারি ) মোর্শেদ সড়কে এ উঠান বৈঠক অনুষ্টিত হয়।

এ সময় ২ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি আলমগির সরদারের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,রামপাল উপজেলা সাবেক চেয়ারম্যান মোল্লা রউফ, আওয়ামীলীগ মনোনিত মেয়র প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বাবু সুনিল কুমার বিশ্বাস, মোংলা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, মোংলা পৌরসভার সাবেক মেয়র শেখ আঃ সালাম, উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, উপজেলা মহিলা ভাইচ চেয়ারম্যান মিসেস কামরুনাহার হাই, মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার, চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, আ’লীগ মনোনিত ২ নং ওয়ার্ড প্রার্থী এইচ, এম শরিফুল ইসলাম, ১.২.৩ মহিলা সংরক্ষিত কাুন্সিলর প্রার্থী জাহানারা হোসেন (চানু ) সহ স্থানীয় আ’লীগের নেতা-কর্মিরা।

উঠান বৈঠকে বক্তরা বলেন, নৌকা মার্কা শেখ হাসিনার প্রতীক, স্বাধীনতার প্রতীক। নৌকায় ভোট দিয়ে আগামীর সুন্দর সমৃদ্ধ মোংলা পোর্ট পৌরসভা গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন আওয়ামীলীগ মনোনীত ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী এইচ, এম শরিফুল ইসলামের উঠান বৈঠাকে বক্তারা এসব কথা বলেন।

এই পৌরসভা গত ১০ বছর ধরে একটি কতিপয় ব্যক্তি পৌরবাসীর সকল নাগরিক সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত করেছে। আপনারা জানেন গত ১০ বছর ধরে এই পৌর বাসী তাদের ভোটাধীকার থেকে বঞ্চিত ছিলো। গত ১৮ ডিসেম্বর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নৌকার মনোনয়ন দেয়। আমার বিশ্বাস এই নৌকার অমর্যাদা আপনারা করবেন না। আগামী ১৬ জানুয়ারি ব্যালট বিপ্লবের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর হাত’কে শক্তিশালী করতে সকলে ঐক্য বদ্ধ হয়ে কাজ করবেন।

বক্তারা আরো বলেন, গত ১০ বছর বিএনপির মেয়র যে উন্নয়নের কথা বলে সে সব আওয়ামীলীগ এবং আমার অবিভাবক খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আঃ খালেকের ঐক্যান্তিক প্রচেস্টায় সম্ভব হয়েছে। তার পরেও আমাদের এই পৌরসভায় কিছু নাগরিক সমস্যা রয়ে গেছে। এখানে ড্রেনেজ ব্যবস্থা অপ্রতুল, বিশেষ করে বৃষ্টি এলে অনেক জায়গায় সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতার। এ সকল কর্ম পরিধি আরো গতীশিল করাই হবে প্রধান কাজ।

গত বিএনপি জোট ক্ষমতায় থাকা কালীন মোংলা বন্দর ছিলো একটা মৃত বন্দর। আওয়ামীলীগ সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসার পর এই বন্দর উজ্জিবিত হয়েছে, আজ বন্দর সচল।এই বন্দরে যা কিছু উন্নয়ন হয়েছে সবই তালুকদার আঃ খালেকের অবদান। পৌরবাসী তথা আপনাদের ভাগ্য বদলের প্রত্যয় নিয়ে আগামীর নির্বাচনে নৌকা মার্কায় এইচ, এম শরিফুল ইসলাম কে উটপাখি, এবং ১.২.৩ সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী জাহানারা হোসেন (চানু) কে আনারস মার্কায় আপনার মূল্যবান ভোট দিয়ে আগামীর সুন্দর সমৃদ্ধি মোংলা পৌর গড়তে প্রতিজ্ঞা বদ্ধ থাকুন।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.