মামুনুল হক যে ভাবে গ্রেফতার হয়

৩৬

ডেস্ক রিপোর্ট: হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি মামুনুল হককে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটের দিকে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) হারুন-অর-রশিদ গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনারের কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে। আপাতত মোহাম্মদপুর থানার মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। অন্য মামলার বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বর্তমানে মামুনুল হক কে ডিবি হেডকোয়ার্টারে প্রেরণ করা হয়েছে। গত কয়েকদিন হেফাজত নেতা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে নারীঘটিত ঘটনা ঘটছিল অর্থাৎ তিনি তিনটি পর্যন্ত বিয়ে করেছে বলে জানা যায়। মিডিয়াতে প্রকাশ পায় তার বিভিন্ন ফোন আলাপ।

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তী অর্থাৎ বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠানে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। এরমধ্যে হেফাজত ইসলামের তিন থেকে চারজন শীর্ষ নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ। সেই মামলার অংশ হিসেবেই তাকে আজকে মোহাম্মদপুরের রাহমানিয়া মাদ্রাসা থেকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

নারায়ণগঞ্জ রিসোর্ট কাণ্ডের ঘটনার মধ্যদিয়েই মিডিয়ার সামনে আসে মামুনুল হক। তার ডাকা হরতালে সারা দেশে ১৩ জন মৃত্যুবরন করেন। সারা দেশে তার বিরূদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। এর মধ্যে কোন কোন মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হবে তা কিছুক্ষনের ভিতর জানাবে ডিবি হেডকোয়ার্টার্স।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.