ভোলায় ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ এর আয়োজনে পলিথিন ও প্লাস্টিক ব্যবহারে সচেতনতামুলক অভিযান

৪১

এইচ এ শরীফ, ভোলা

পলিথিন ব্যবহার বন্ধ করে পরিবেশকে দূষণমুক্ত রাখতে এই উদ্যোগটি হাতে নিয়েছে এক ঝাঁক তরুন সেচ্ছাসেবক।
২১ জানুয়ারি, বৃহস্পতিবার সকাল ১০ থেকে প্রায় ৩ ঘন্টাব্যাপী
রতনপুর বাজারে
কোস্ট ট্রাস্টের সহযোগিতায় ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ ভোলা জেলা কর্তৃক আয়োজিত
“আমার বাজার আমার দায়িত্ব” স্লোগানে
পরিস্কার পরিছন্নতা নামক অভিযান পরিচালনা করেন সেচ্ছাসেবকরা।

রতনপুর বাজারে সেচ্ছাসেবীরা নিজ হাতে বাজারটা সম্পূর্ন পরিস্কার করে কোস্ট ট্রাস্টের সহযোগিতায় ৬টি ডাস্টবিন দেয় ও ৫০০ মাক্স বিতরণ করেন মানুষ কে পলিথিন ও প্লাস্টিক বাবহারে সচেতন এবং বাল্যবিবাহ ও শিশু সুরক্ষা বিষয়ে ধারনা দেন।

তাদের সঙ্গে এই কাজে উপস্থিত ছিলেন –
রতনপুর বাজারের ইউপি সদস্যপ্যানেল
চেয়ারম্যান মোঃ মাইনদ্দীন,
বাজার কমিটি সাধারন সম্পাদক হাদিসুর রহমান। আরও উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ মিয়া এবং উপস্থিত ছিলেন বাজারের ব্যবসায়ীবৃন্দ।

রতনপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান মাইনদ্দীন বলেছেন, “যে কাজটি আমাদের করা উচিৎ ছিল সেটা আজ আমাদের তরুনরা করছে। মানুষকে সচেতন করছে, পলিথিন ও প্লাস্টিক ব্যবহারের কুফল মানুষের সামনে তুলে ধরছে। তিনি আরও বলেন পলিথিন ব্যবহার বন্ধ করতে হলে অবশ্যই কারখানা বন্ধের উদ্যোগ নিতে হবে। খাল, বিল, নদী, এমনকি সাগরের দূষণের অন্যতম কারণ পলিথিন ও প্লাস্টিক।
সরকার উদ্যোগ না নিলে পুরো দেশের মাটি ও পানি দূষিত হবে।”

বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ মিয়া বলেন,
“মাটিতে প্লাস্টিক থেকে টক্সিক রাসায়নিক পদার্থ গাছে মিশে যাচ্ছে। প্লাস্টিক মানুষের শরীরে আরো অনেক মরণ ব্যাধির পাশাপাশি ক্যান্সারের জন্য দায়ী।”

ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ ভোলা জেলার সভাপতি মনিরুল ইসলাম বলেন,
“পলিথিনের ব্যাগ কোনভাবেই ব্যবহার করা যাবে না। পলিথিন ও প্লাস্টিক ব্যবহারের করে মানুষ যেখানে সেখানে ফেলছে। যার ফলে মানুষ ও প্রানীকুলের অনেক ক্ষতি হচ্ছে, তাই আমরা মানুষ কে সচেতনতার পাশাপাশি বাজারে ৬ টি ডাস্টবিন ও ৫০০ মাস্ক বিতরন করি। আমরা বিশ্বাস করি আমাদের করা কাজের মাধ্যমে দেশ ও মানবতার সেবা আরও অগ্রসর হবে।”

তাদের সঙ্গে আর ও উপস্থিত ছিলেন –
ভলিন্টিয়ার ফর বাংলাদেশ ভোলা জেলার অর্থ সম্পাদক ইসমাইল, প্রজেক্ট অফিসার খালেদ, হিউম্যান অফিসার জুবায়ের, মিতু, তামজিদ, জুঁই, নাজিম, আরিফুর রহমান, দিপু, শাহিন প্রমুখ।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.