ভূঞাপুরে অপরিকল্পিত নদী খনন বন্ধের দাবিতে কৃষকদের কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি

মোঃ ফরিদুল ইসলাম,ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ টাংগাইলের ভূঞাপুরে যমুনা নদীতে অপরিকল্পিতভাবে নদী খনন তথা ড্রেজিং প্রকল্পের ফলে কৃষকদের হাজার হাজার একর ফসলি জমি কেটে নদী খনন বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছে ভূঞাপুরের যমুনা নদীর চরাঞ্চলের হাজার হাজার কৃষক। গতকাল ২৭ ডিসেম্বর সকালে গাবসারা ইউনিয়নের রুলীপাড়া নৌকার ঘাটের মসজিদের সামনে গাবসারা ও অর্জুনা ইউনিয়নের কৃষকসহ নানা পেশাজীবী মানুষ এ প্রতিবাদ সভায় অংশগ্রহণ করেন।

প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন গাবসারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনির,বক্তব্য রাখেন সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন তালুকদার জিন্নাহ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুর রাজ্জাক মিঞা, আওয়ামী লীগ নেতা ফরহাদ আলী আকন্দ, খোরশেদ আলম। এছাড়াও স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান, আব্দুস ছালাম, ফজলু মুন্সী, মহর আলী মন্ডল, আমীর আকন্দ প্রমুখসহ অন্যরাও বক্তব্য দেন।

সভায় বক্তারা বলেন, চরাঞ্চলে ফসলি জমিতে অপরিকল্পিতভাবে নদী ড্রেজিং করার বিপাকে পড়েছে হাজারো কৃষকেরা। এতে কৃষকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। যমুনা নদী খননের জন্য ফসলি জমির উপর লাল নিশান লাগিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে। যার ফলে হাজার হাজার একর রের্কডকৃত ফসলি জমি এবং বসতভিটা নদীগর্ভে হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যাবে চরাঞ্চলের অসহায় কৃষকরা। এ নিয়ে কিছুদিন আগে টাংগাইলে একটি মানবন্ধন করা হয়েছিল।

বক্তারা আরও বলেন- আমরা কৃষকরা ন্যায্য দাবিতে আনন্দোলন কর আসছি এবং এর তিব্র নিন্দা জানায়। এ বিষয়ে টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, ভূঞাপুর উপজেলার যমুনা চরাঞ্চলের নদী খনন ও শাসন কাজ আপাতত বন্ধ রয়েছে। ওই এলাকার স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও কৃষকরা নদী খনন বন্ধে প্রতিবাদ সভা, মানববন্ধন ও আনন্দোলন করে যাচ্ছে। এ বিষযটি উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ জানানো হয়েছে।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.