ব্যথিতের মোনাজাত

২৭

 

ব্যথিতের মোনাজাত
মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম

প্রত্যুষে পাখি আজ নাহি ডাকে কূজনে,
সুরের ধ্বনি তবু আজো বাজে মোর হ্নদয়ে,
পরাণে ব্যাথা আর নয়ন মজেছে তোমাতে,
রিক্ত হস্তে আমি পাপী ডাকি তোমাকে,
আমি দীন-হীন এক মিসকিন পাপের থলি বয়ে,
অশ্রু ফুলের মালা লয়ে আজ এসেছি তোমার দ্বারে।

কত যে চলেছি ভুলে তোমাকে,
পাখির কলরবে নীলিমায় মন কত মজেছে,
উতলা যৌবনা নদীর-স্রোতে,
বিলিয়ে দিয়েছি মোরে মিথ্যে প্রেমে,
মিশিতে প্রভাতে দিবাতেও আজ আঁখিজলে ভাসি,
তুমি মাওলা!! রহমান ডাক ছেড়ে,
অশ্রু ফুলের মালা লয়ে আজ এসেছি তোমার দ্বারে।

প্রেমশরাবের পানশালায় মোরে রাখিয়াছি মত্ত,
নফসের ধোঁকায় পড়ে ভুলিয়াছি সেই মহাসত্য,
কতনা হরষে উল্লাসে বিকিয়েছি মোর যৌবন,
ভাজা-পোড়া বুকে আজ হয়েছে সেই সত্যের আগমন,
তুমি মাওলা!রহমান ডাক ছেড়ে,
অশ্রুফুলের মালা লয়ে আজ এসেছি তোমার দ্বারে।

যতদিন জীবন ততদিন এই ধরাতে,
জ্বালাময় এক প্রেমের ঢেউয়ে ভাসিয়ে রাখো মোরে,
তুমি মাওলা!!বসত করো মোর মনের সিংহাসনে,
পাপী-তাপী নালায়েক মোরে করে নাও আপন,
পাই যেন মদিনার মসনদে সেই কাবার আসন।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.