বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশের আম্পায়ার সৈকত।

৬৮

নিজস্ব প্রতিবেদক:বশির উদ্দিন আহমেদ

বিশ্ব কাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ থেকে অভিষেক হতে যাচ্ছে ঘরোয়া ক্রিকেট সহ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সুনামের সহিত আম্পায়ারিং এর দায়িত্ব পালন করা শরফুদ্দৌলা ইবনে শহীদ সৈকতের ।

একসময়ের নামকরা বাঁহাতি স্পিনার সৈকতের ঘরোয়া ক্রিকেটে আম্পায়ারিং দিয়ে পথচলা শুরু হয় ।ধীরে ধীরে নিজেকে পরিশীলিত ও পরিমার্জিত করে জায়গা করে নেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। দীর্ঘদিন ধরেই সুনামের সহিত ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পরিচালনা করলেও বিশ্ব আসরের সেরাদের মধ্যে এবার‌ই প্রথম জায়গা করে নিলেন ।এর আগে আরেক বাঁহাতি স্পিনার এনামুল হক মনি বাংলাদেশে ২০১১সালে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে রির্জাভ আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করেন ।মাঠে কিংবা টিভিতে সুযোগ হয় নি ।

সৈকত এবার মাঠে এবং টিভিতে ম্যাচ পরিচালনার সুযোগ পাবেন ।৫ অক্টোবর ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার প্রথম ম্যাচেই রিজার্ভ আম্পায়ারের দায়িত্ব পেয়েছেন। আইসিসি ইতিমধ্যেই ১৬ জন আম্পায়ার ও চার জন ম্যাচ রেফারির নাম ঘোষনা করেছে । সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ছাড়া আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারিদের ম্যাচ পরিচালনার তালিকাও দিয়ে দেয়া হয়েছে ।

১৯৭৬ সালের ১৬ অক্টোবর জন্ম নেয়া সৈকত ২০০৭ সালে বরিশাল ও সিলেট বিভাগের মধ্যকার খেলা দিয়ে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে আম্পায়ারিং শুরু করেন । পরবর্তীতে ২০১০ সালে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা ওডিআই ম্যাচে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আম্পায়ার হিসেবে পদার্পণ করেন ।
খেলোয়াড় হিসেবে খুব বেশি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেননি।ঢাকা মেট্রোপলিটন হয়ে ১০ টি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেছেন । এছাড়া ১১৯৪ সালে কেনিয়ায় অনুষ্ঠিত আইসিসি ট্রফিতে বাংলাদেশের হয়ে ৩ টি ম্যাচ খেলেছেন ।

বাংলাদেশের প্রথম আম্পায়ার হিসেবে বিশ্ব আসরে সৈকতের এই পদার্পন বাংলাদেশের জন্য গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা রাখবে এবং ভবিষ্যতের আম্পায়ারদের জন্য অনুপ্রেরণা হয়ে কাজ করবে ।

100% LikesVS
0% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.