“বঙ্গবন্ধু ও মানবাধিকার” শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতায় ৬৪ জেলার মধ্যে পটুয়াখালী জেলা ১ম স্থান অধিকার

৩৩

মোঃ রেশাদুল হক, পটুয়াখালী প্রতিনিধি: পটুয়াখালী জেলার জন্য আজ অত্যন্ত গৌরব এবং সম্মানের একটি দিন। জাতীয় মানবাধিকার কমিশন কর্তৃক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত”বঙ্গবন্ধু ও মানবাধিকার” শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা বিবেচনায় বাংলাদেশের ৬৪ জেলার মধ্যে পটুয়াখালী জেলা ১ম স্থান অধিকার করে। এছাড়াও বিভাগের মধ্যে বরিশাল শ্রেষ্ঠ বিভাগ এবং উপজেলার মধ্যে পটুয়াখালী সদর ১ম স্থান, মির্জাগঞ্জ উপজেলা ২য় স্থান ও কলাপাড়া উপজেলা ৩য় স্থান অধিকার করে।

আজ “বঙ্গবন্ধু ও মানবাধিকার” শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, এমপি, মাননীয় স্পিকার, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব আনিসুল হক, এমপি, মাননীয় মন্ত্রী, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জনাব নাসিমা বেগম, এনডিসি, চেয়ারম্যান জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।

বরিশাল বিভাগের মান্যবর বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সশরীরে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। বিভাগীয় কমিশনার মহোদয়ের কাছ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন পটুয়াখালী জেলার আবদুল্লাহ আল জুবায়ের, সুবিদখালী সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মির্জাগঞ্জ; এএম এম আমিন, গলাচিপা সরকারি কলেজ, গলাচিপা; বরিশাল জেলার তাসনিম তিশা, বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজ; ভোলা জেলার খাদিজা আফরোজ রিসা, চরফ্যাশন সরকারি ট্যাফনাল ব্যারেট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়, চরফ্যাশন, ভোলা।

সম্মেলন কক্ষে আরও উপস্থিত ছিলেন মোঃ মতিউল ইসলাম চৌধুরী, জেলা প্রশাসক, পটুয়াখালী; বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আলহাজ্ব মােঃ খলিলুর রহমান মােহন, চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদ, পটুয়াখালী; জনাব মােহাম্মদ মইনুল হাসান পিপিএম, পুলিশ সুপার, পটুয়াখালী; বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আলহাজ্ব কাজী আলমগীর, সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, পটুয়াখালী জেলা শাখা; বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব ভিপি আব্দুল মান্নান, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, পটুয়াখালী; জনাব ডা. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, সিভিল সার্জন, পটুয়াখালী; বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ সহ অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে জেলা প্রশাসক এই সফলতার জন্য প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। একইসাথে সুসমন্বয়ের মাধ্যমে বরিশাল বিভাগকে নেতৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য মান্যবর বিভাগীয় কমিশনার মহোদয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.