বকশিগঞ্জে মাসুম প্রামাণিকের হস্তক্ষেপে মুক্তি পেল অর্ধশাতাধিক মানুষ

১১৪

মেহেদী হাসান, জামালপুর প্রতিনিধিঃ

জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জের বগারচর ইউনিয়নের উত্তর ধাতুয়াকান্দা গ্রামের ৫ টি পরিবার অবরুদ্ধাবস্থা থেকে মুক্তি পেয়েছে গতকাল ২২ জানুয়ারী। বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনমুন জাহান লিজার হস্তক্ষেপে নব নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মাসুম প্রামানিকের সহায়তায় বাঁশের বেড়া অপসারণন করতে বাধ্য হয়েছেন এনামুল হক নামের সেই ব্যক্তি। এতে করে ৭ মাস পর মুক্তি পেয়েছে নুর নবীর পরিবার। ২১ জানুয়ারি ওয়ার্ল্ড গ্লোবাল টিভি এর অনলাইন ভার্সনে একটি স্বচিত্র সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদটি প্রকাশের পর বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনমুন জাহান লিজা বিষয়টি সমাধানের জন্য বগারচর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুম প্রামানিককে দায়িত্ব দেন।জানা-যায় ২২ জানুয়ারি দুপুরে বগারচর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুম প্রামানিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুই পক্ষের সাথে আলোচনা ও সমঝোতার মাধ্যমে বাঁশের বেড়া অপসারণ করেন। ফলে ৫ টি পরিবার ৭ মাসের অবরুদ্ধাবস্থা থেকে মুক্তি পায়। উল্লেখ্য বকশীগঞ্জ উপজেলার ধরারচর গ্রামের সহিজল হকের ছেলে এনামুল হকের সঙ্গে একই গ্রামের নুর নবীর পারিবারিক বিষয় নিয়ে বিবাদ হয়েছিল। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শত বছরের প্রাচীন চলাচলের সড়ক বাঁশের বেড়া দিয়ে বন্ধ করে করে দেয় এনামুল। ফলে নুর নবীসহ ৫ পরিবারের স্বাভাবিক চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনায় নারী ও শিশুসহ ৫০ জন সদস্য অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। প্রয়োজনে অনেক পথ ঘুরে অতিকষ্ট করে চলাফেরা করে আসছিলেন অবরুদ্ধ পরিবারের লোকজন। একই কারণে অবরুদ্ধ পরিবারের বয়োবৃদ্ধ, অন্তঃসত্ত্বা ও শিক্ষার্থীরাও চরম ভোগান্তির শিকার হয়ে আসছিলো। জনাব মাসুম প্রামাণিক জানান, বগারচর ইউনিয়নের উওর ধারারচর গ্রামে ৫ টি পরিবার রাস্তার জন্য অবরূদ্ধ সংবাদটি বক্শীগন্জ উপজেলার ইউএনও মহোদয় কর্তৃক আমাকে অবহিত করায় আমি নিজে থেকে (২জন মেম্বার ও চৌকিদার সহ) দুই পক্ষকে সমঝোতার মাধ্যমে অবরূদ্ধতা খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি, আলহামদুলিল্লাহ। এটাই আমার প্রথম শালিশ ছিল। জনাব ফিরোজ প্রামাণিক বলেন, মাসুম ভাইয়ের সহযোগিতায় স্বাধীনতা পেল প্রায় ৫০ জন সাধারণ মানুষ। তাদের চলাচলের ভোগান্তি দূর হলো দীর্ঘ দিন পর। ভূক্তভোগীরা কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রশাসন ও চেয়ারম্যান সাহেবকে।

100% LikesVS
0% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.