“ফেনী বিশ্ববিদ্যালয়ে নবীনবরণ ও বিদায় অনুষ্ঠান”

২৯

ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ সাদ্দাম হোসেন চয়ন, চট্টগ্রাম বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান :

ফেনী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভিন্ন ব্যাচের নবীনরণ ও বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৬শে নভেম্বর ২০২১ ইং শুক্রবার শহরের একটি রেস্তোরায় গণ্য মান্য অতিথিদের উপস্থিতিতে এই অনুষ্ঠান সুসম্পন্ন হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য সচিব ডাঃ এ.এস.এম. তবারক উল্লাহ চৌধুরি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন শাহ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক তায়েবুল হক, রেজিস্ট্রার এ.এস.এম. আবুল খায়ের এবং ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন (ভারপ্রাপ্ত) সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আবুল কাসেম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এরশাদুল হক।

অনুষ্ঠানে অতিথিরা তাদের বক্তব্যে বার বার একটি কথাই বলেন “ফেনী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে কোনো আপোষ করা হয় না। যার দরুন আজ আমাদের শিক্ষার্থীরা, শিক্ষকরা এখান থেকে দেশে বিদেশে স্কলারশিপ নিয়ে পড়তে যাচ্ছে, বড় বড় প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য সচিব ডাঃ এ.এস.এম. তবারক উল্লাহ চৌধুরি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন “বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়মিত পদচারণা থাকতে হবে, পরস্পরের সাথে মিথষ্ক্রিয়া বাড়াতে হবে। তবেই তোমরা উন্নতি করতে পারবে।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন শাহ তার বক্তব্যে বলেন “আমাদের শিক্ষার্থী সংখ্যা নিয়ে আমি চিন্তিত নই। আমাদের শিক্ষার কোয়ালিটিই আমাদের শিক্ষার্থীর কোয়ান্টিটি বাড়াবে।”

কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক তায়েবুল হক বলেন “গাছের পরিচয় ফলে। ফেনী বিশ্ববিদ্যালয় যদি গাছ হয়, ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট হচ্ছে সেই গাছের ফল।”

রেজিস্ট্রার এ.এস.এম. আবুল খায়ের বলেন “আমার মতে, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের মধ্যে ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টই সর্বাধিক উদ্ভাবনী কাজ করছে।”

সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আবুল কাশেম বলেন “কিছুদিন আগে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আমাদের ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের ল্যাব ব্যবহার করতে এসেছিলো। এতেই বোঝা যায় আমাদের ট্রিপল-ই ডিপার্টমেন্ট কেমন।”

বিদায়ী বক্তব্যে ১২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী এখলাস উদ্দিন খন্দকার বাবলু বলেন “হয়তো আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিদায় নিচ্ছি, কিন্তু অনানুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষকদের সাথে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সর্বদা যুক্ত থাকবো।”

আরেক কৃতি বিদায়ী শিক্ষার্থী পুলক গুহ বলেন “তাত্ত্বিক শিক্ষার পাশাপাশি ব্যাবহারিক শিক্ষাও সমান জরুরি। ফেনী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ব্যাবহারিক শিক্ষার যেসব সুযোগ সুবিধা রয়েছে তা অনেক নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়েও নেই।”

শেষে নবীনদের ফুল দিয়ে বরণ এবং বিদায়ী শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট দিয়ে বিদায় জানানো হয়।

সবশেষে ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এরশাদুল হক শীঘ্রই অস্ট্রেলিয়ায় পিএইচ.ডি. ডিগ্রি নিতে যাওয়া উপলক্ষ্যে সকলের কাছ থেকে বিদায় নেন।

100% LikesVS
0% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.