পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলার অভিযোগ

মোঃ আতিক হাসান, গাজীপুর প্রতিনিধিঃ- গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপির প্রার্থী অ্যাডভোকেট কাজী খানের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে, শ্রীপুর পৌরসভার রেলগেইট এলাকায় প্রধান নির্বাচনী অফিসে, আওয়ামীলীগ প্রার্থীর সমর্থকেরা হামলা করার অভিযোগ করেন। এসময় তারা লোহার রড, হকিস্টিক ও লাঠি নিয়ে তার নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর করেন। এসময় আতঙ্কে আশপাশের দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়।

রবিবার দুপুর সাড়ে ১১টা থেকে ৭টা পর্যন্ত থেমে থেমে পাল্টা-পাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শ্রীপুর পৌর বিএনপি’র সভাপতি অ্যাডভোকেট কাজী খান এ অভিযোগ করেন। আওয়ামী লীগ দাবি করেছে, বিএনপি’র লোকজন রেল গেইট এলাকায় আওয়ামী লীগের নৌকার মিছিলে প্রথম হামলা করে। এসময় আত্নরক্ষার্থে তারা তাদের প্রতিহত করার চেষ্টা করে। এতে তাদের ১০জন কর্মী সমর্থক আহত হয়।
তাদেরকে বিভিন্ন ফার্মেসী থেকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে, বিএনপি প্রার্থী’র দাবি আওয়ামীলীগ প্রার্থীর (নৌকার) সমর্থকেরা তার নিনর্বাচনী কার্যালয়ে হামলা করে। এ ঘটনায় বিএনপি প্রার্থী অ্যাাভোকেট কাজী খান ও গাড়ারণ এলাকার আব্দুস সালামের ছেলে কৃষক দলের নেতা খোরশেদ আলমসহ (৩৫) উভয়পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। তাদের দুইজনকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী অ্যাাভোকেট কাজী খান অভিযোগ করেন, রবিবার বেলা সাড়ে
১১টায় তিনিসহ তার কর্মীসমর্থকরা শ্রীপুর রেলগেইটে নির্বাচনী অফিসে ছিলেন।

সেখানে বসে কর্মীদেরকে দিনের প্রচারনা নিয়ে কথা বলছিলেন। এসময় শ্রীপুর পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম মোল্লার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও
ছাত্রলীগের প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী নৌকার মিছিলসহকারে হাতে রড, হকিস্টিক ও লাঠি নিয়ে তার নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা করে ভাংচুর চালায়। এসময় তার ১৫ জন কর্মী-
সমর্থক আহত হয়।

শ্রীপুর পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম মোল্লা জানান, বেলা সোয়া ১১টায় নেতাকর্মীদেরকে নিয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস নিয়ে আলোচনা করছিলাম। এসময় শহরের
প্রধান সড়ক দিয়ে শ্রীপুর চৌরাস্তা থেকে রেল গেইটের দিকে নৌকার সমর্থকেরা মিছিল নিয়ে যাচ্ছিল। মিছিলটি রেলগেইট পার হলে ধানের শীষের কর্মী সমর্থকেরা তাদের শান্তিপূর্ন মিছিলে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এ খবর দলীয় কার্যালয়ে আসলে নেতাকর্মীরা রেলগেইটের দিকে যায়।

আমি দলীয় নেতাকর্মীদরকে নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য গেলে বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচর্নী কার্যালয়ের সামনে থেকে আমাদেরকে লক্ষ্য করে রেল লাইনের পাথর নিক্ষেপ শুরু করে।

কালিয়াকৈর-শ্রীপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আল-মামুন জানান, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পায়নি। এ ঘটনায় গ্রেপ্তারও নেই। এখন পরিস্থিতি শান্ত। পৌরশহরে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকতা মোহাম্মদ ইস্তাফিজুল হক আকন্দ বলেন, ঘটনা শুনা মাত্রই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনছে এবং পুলিশকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। পৌর শহরে ম্যাজিস্ট্রেট আছে। পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে যা যা করার তার সব করা হচ্ছে। পাশাপাশি বিএনপি প্রার্থী নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ করায় তার বাড়ীতে পুলিশ মোতায়েন এবং তাকে সার্বক্ষনিক পুলিশী সহযোগীতা দেওয়া হচ্ছে।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.