পিরোজপুরে ৩৬ হাজার ডোজ করোনা ভ্যাকসিন পৌঁছেছে

৩০

প্রিয়ন্ত হালদার রাজ, পিরোজপুর সদর উপজেলা প্রততিনিধি :

ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ৫০ লাখ ডোজ টিকা বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে। প্রথম ধাপে পাওয়া এই টিকা পিরোজপুর এসে পৌঁছেছে। এই ধাপে পিরোজপুর জেলায় ৩ হাজার ৬শ’ ভায়াল (বোতল) অর্থ্যাৎ ৩৬ হাজার ডোজ টিকা পাঠিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। যা দিয়ে প্রায় ৩৬ হাজার মানুষকে টিকা দেওয়া যাবে। টিকা সংরক্ষণ ও দেওয়ার জন্য সব ধরণের প্রস্তুতিও সম্পূর্ণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পিরোজপুর সিভিল সার্জন ডা.হাসনাত ইউসুফ জাকী।এই টিকা জেলা শহর ও উপজেলাগুলোতে সরবরাহ করা হবে।

পিরোজপুরে আজ রবিবার ৩৬ হাজার ডোজ করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন পৌঁছেছে। বিকেলে সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে ভ্যাকসিন এসে পৌঁছানোর পর সিভিল সার্জন ডা. মো. হাসনাত ইউসুফ জাকী তা গ্রহণ করেন। এ সময় জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) কাজী শাহ্নেওয়াজ, সদর ইউএনও বশির আহমেদ এবং পিরোজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মুনিরুজ্জামান নাসিম আলী ও দৈনিক সাহসী কন্ঠের পিরোজপুর জেলা প্রততিনিধি সঞ্জয় বৈরাগী উপস্থিত ছিলেন।

সিভিল সার্জন জানান, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে পিরোজপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। এছাড়া সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ভ্যাকসিন গ্রহীতাদের তালিকা করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।
জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, ভ্যাকসিন গ্রহীতাদের নিবন্ধন শুরু হয়েছে। নিবন্ধন শেষে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারী থেকে প্রথম পর্যায়ে সরকারী কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধিদের করোনা টিকা প্রদান করা হবে।
উল্লেখ্য, এ পর্যন্ত পিরোজপুর জেলায় ৬ হাজার ৩০ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১ হাজার ১৮৪ জন করোনা পজেটিভ হয়েছে। জেলায় ১ হাজার ১০২ জন করোনা রোগী সুস্থ্য হয়েছেন এবং ২৫ জন করোনা রোগী মারা গেছেন। জেলায় বর্তমানে করোনা সংক্রমণের হার ৫ শতাংশ।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.