নাজিরপুরে মধুমতি নদীতে স্কুল, মন্দির, বাসস্থানসহ শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিলীন

২০

সঞ্জয় বৈরাগী, পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার মধুমতি নদীতে প্রবল ভাঙ্গন দেখা দেয়ায় নদী তীরবর্তী ২নং মালিখালি ইউনিয়নের সাচিয়া বাজার নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে মালিখালি ইউনিয়নের স্কুল, মন্দির, বাসস্থানসহ শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।
উপজেলা প্রশাসন অবগত থাকা সত্ত্বে ও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় ক্ষোভে ফুসঁছেন স্থানীয় এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ীরা।

সাচিয়া বাজারের মিষ্টির দোকান ব্যবসায়ী লিটন পাত্র ও সমীর পাত্র জানান, বাজারে তাদের দুটি মিষ্টির দোকান ছিল। নদী ভাঙ্গনের কবলে পরে তা বিলীন হয়েছে গেছে। নদী তীরবর্তী আরও প্রায় ২৫টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। সমীর পাত্র আরও জানান, নদী ভাঙ্গনের শুরু থেকেই স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের জানানো হয়েছে। তবে ভাঙ্গনরোধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

মালিখালি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুমন মন্ডল (মিঠু) জানান, মধুমতি নদী থেকে বালু উত্তোলনের ফলে আমার ইউনিয়নের ১১নং ঝনঝনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাচিয়া সার্ব্বজনীন দূর্গা মন্দির, সাচিয়া বাজারের দোকান ঘর, জেলে সম্প্রদায়ের কয়েক শত ঘরবাড়ি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। আমি কয়েক বার বিষয়টি উপজেলা আইন শৃংখলা সভা এবং উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটিতে ভাঙ্গনের বিষয়টি উত্থাপন করলেও আজ পর্যন্ত প্রশাসন কোন প্রতিকারের ব্যবস্থা করেনি।

পিরোজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. শাহ আলম বালী জানান, সাচিয়া বাজার রক্ষায় সেখানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে জিউব্যাগ ফেলে নদী ভাঙ্গন রোধের একটি প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে কয়েকবার দরপত্র আহবানও করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন দরপত্রদাতা পাওয়া যায়নি। ফলে কাজটি করা যাচ্ছে না।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.