দেশবীর ভাষা সৈনিকের ১০১তম জন্মদিন পালন।

২৫

মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
জেলা প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ

মেজর আফসার বাহিনীর বয়োজ্যেষ্ঠ সৈনিক,ব্রিটিশ বিরোধী, ভাষা সৈনিক ও স্বাধীনতা যুদ্ধের অকুতোভয় সৈনিক মো:হোছেন আলী খাঁন বাদেশী ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার বরাইদ গ্রামে ১৯২০ সালের ২০শে জানুয়ারি বিখ্যাত খাঁন পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।গত একদিন আগে অর্থাৎ ২০/০১/২০২১ তারিখে জীবন্ত এই দেশবীর কিংবদন্তীর ১০১ তম জন্মবার্ষিকী পালন করা হয়।তার জন্মদিন উপলক্ষ্যে বরাইদ হাফেজিয়া মাদ্রাসায় একটি আলোচনা সভা,দোয়া ও ইসলামী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, হাফেজ মাওঃ আশরাফুল হক। অনুষ্ঠানে সকল ছাত্র-শিক্ষক ও স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গও অংশ গ্রহণ করেন।আলোচিত দেশবরেণ্য ভাষা সৈনিক বাদেশী নিজেও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। দোয়া ও মিলাত শেষে সভাপতির সমাপনী বক্তব্যের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

উল্লেখ্য, ১৯৪০ সালে আঞ্চলিক মুসলিমলীগ নেতাদের হাত ধরে,বাদেশী মুসলিমলীগে যোগদান করেন।পরবর্তীতে মুসলিমলীগের নেতৃত্বে তিনি ব্রিটিশ বিরোধী ও জমিদার উচ্ছেদ আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন।

১৯৪৯ সালে মাওলানা ভাষানীর বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়ে আওয়ামী মুসলিম লীগে যোগদান করেন।পরবর্তীতে তমুদ্দুন মজলিসের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় ও আঞ্চলিক ভাষা আন্দোলনে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ গ্রহণ করেন। এরপর শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগে যোগদান করে সকল আন্দোলনে অংশ গ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে ময়মনসিংহের আফসার বাহিনীর ১০ জন উপদেষ্টা সদস্যের মধ্যে অন্যতম একজন উপদেষ্টা হিসাবে দ্বায়িত্ব পালন করেন। ভালুকার মল্লিকবাড়িতে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, মেজর আফসার, কদ্দুস খান ও বাদেশী মিটিং করে, ঐক্যমত পোষণ করেন যে,স্বাধীনতা আন্দোলন ও দেশের স্বার্থে যেকোনো আন্দোলনে তারা পরস্পরকে সহযোগিতা করবে।

পরবর্তীকালে আফসার বাহিনী ও কাদেরিয়া বাহিনীতে যোগদান করে, যুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহণ করেন। তাছাড়া,সমাজ সেবা ও জনকল্যাণ মুলককাজেও রয়েছে তার স্বতঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহণ। তার বর্তমান বসবাসরত মহল্লা হোছেন নগর নামে পরিচিতি লাভ করেছে।জন্মদিনের এক বার্তায় তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন এবং আগামী বাংলাদেশের সফলতা কামনা করেছেন।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.