ঢাবিতে পা দিয়ে লিখে ভর্তি পরীক্ষা :যা বললেন শিক্ষক

৪৮

ডেস্ক রিপোর্ট :

শেরপুরের ভাইরাল হওয়া ছাত্রীর বিষয়ে শিক্ষক বনি আমিন জানান,

হাজার হাজার শিক্ষার্থীর ক্লাস নিলেও, শুধু মাত্র হাতে গোনা কয়েকজন আমার কাছের শিক্ষার্থী। যারা নিয়মিত আমার সাথে অনলাইনে যোগাযোগ করে। তার মধ্যে একজন হচ্ছে সুরাইয়া। যার বাসা শেরপুরে।

গতকাল সকালে আমাকে বলল যে, ভাইয়া অনেক চিন্তা হচ্ছে, কি যে হবে!!!
আমি বললাম যে, চিন্তার কিছু নেই আল্লাহ যা করে ভালোর জন্যই করে। আর আমার দোয়া সবসময় তোমার সাথে আছে।

প্রথম যেদিন ও আমাকে বলে যে, “ভাইয়া আমি তো হাত দিয়ে লিখতে পারি না। পা দিয়েই সব কিছু লিখতে হয়।”
তখন আমি শুধু অবাক হয়ে ভাবছিলাম যে, আমরা আসলে কতটা পিছিয়ে আছি সুরাইয়ার থেকে। ওর মত চেষ্টা করলে আমরা হয়তো আরও ভাল কিছু করতে পারতাম জীবনে।
সুরাইয়ার আরো বড় সমস্যা ছিল যে, ওর বাসায় নেটওয়ার্কের সমস্যা ছিল। যে কারনে ভিডিও কলে ক্লাস করার সময়, বাসার বাইরে বসে ক্লাস করতে হতো ওকে। কিন্তু তারপরও একদিনও কোন ক্লাস মিস করেনি সুরাইয়া।

চান্স না পেলে আমি বলবো যে, হয়তো ঢাবি তার মত একজন পরিশ্রমি আর মেধাবী শিক্ষার্থীকে পাওয়ার যোগ্য না।

সুরাইয়ার মত একজন ছাত্রী পড়াইতে পেরে সত্যিই নিজেকে গর্বিত বড় ভাই মনে হচ্ছে।
সবাই ওর জন্য দোয়া করবেন। যেন আল্লাহ ওর মনের আশা পূরণ করে।

এমনটাই আশা করছেন শিক্ষক বনি আমিন।

100% LikesVS
0% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.