টাংগাইল আশিকপুর বাইপাস বাসস্ট্যান্ডের রাতের চিত্র

৩৯

ডেস্ক রিপোর্টঃ রাত ৮.৩০ এর পর থেকেই একপাড় হতে অন্য পার একদম অন্ধকারাচ্ছন হয়ে থাকে। দুই একটি দোকান যতক্ষণ খুলা থাকে ততক্ষণই ভয় কম থাকে, দোকান মালিকড়া চলে গেলেই এমন অবস্থা হয়ে যায় রাস্তার এপাড় থেকে অন্য পাড়ে কুয়াশা ও অন্ধকারে কিছু দেখা যায় না। অথচ এমন একটি গুরুত্তপূর্ণ স্থানে নেই একটি বাতি বা আলোর ব্যবস্থা।

ছিনতাইকারি,হাইজাকার এবং মলম পার্টির জন্য খুব সহজেই কার্যসিদ্ধি সম্ভব। চাকুরির সুবাধে ও বিভিন্ন কাজের জন্য অনেক লোক প্রতিদিন যাওয়া আশা করে, আবার কিছু লোক প্রতি সপ্তাহেই এখান থেকে বাসে উঠে ও নামে। কিছু কোম্পানি কর্মজিবী মানুষ আছে যারা এরকম সময়ের পরেও ঢাকার উদ্দেশ্য রওনা দেয়। অফিসের টাকা এবং মোবাইল নিয়ে সবাই ভয়ে থাকে কখন কে বা কারা এসে ধরে। ভয়টা এখন আরো বেশি কাজ করছে কারন এখন কুয়াশার পরিমান একটু বেশি। জানা গেছে কিছুদিন আগে মলম পার্টির খপ্পরে পড়েছে এবং প্রায় দুই লাখ টাকা হারিয়েছে সাথে ২ টি মোবাইল ফোনও ছিনতাই হয়েছে।

এমতবস্থায়,প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করে আবেদন জানিয়েছে জনগন,অনুগ্রহ করে বিষয়টি খুব গুরুত্তসহকারে দেখার জন্য প্র‍য়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা দরকার।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.