ছাত্রলীগ নেতা জসিমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

১২

ডেস্ক রিপোর্ট: বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ছাত্রলীগ নেতা জসিম ধর্ষণ করেন। এতে তিনি গর্ভবতী হয়ে পড়লে জসীম তাকে গর্ভপাতের ওষুধ খাওয়াতে থাকেন এবং একপর্যায়ে বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গর্ভপাত করান। ছাত্রলীগ নেতার বিয়ের একদিনের মাথায় এমন অভিযোগ তুলে ধরে গতকাল সোমবার রাতে মেট্রোপলিটন বিমানবন্দর থানা পুলিশে মামলার আবেদন করেন ওই তরুণী।

অভিযোগ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করেছেন সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমলেশ চন্দ্র হালদার।

পুলিশের একটি সূত্র অভিযোগের বিষয়ে জানায়- ২০১৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর বাসায় ঢুকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন তাকে ধর্ষণ করেন। এরপর জসিম তাকে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেন।তরুণী তাকে বিয়ের চাপ দিলে চলতি বছরের ৫ মার্চ জসিম তাকে দুই দিনের মধ্যে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু সময় পেরিয়ে গেলেও বিয়ে করেন না। সর্বশেষ জানিয়ে দেন তিনি বিবাহিত এবং ওই তরুণীকে তার বিয়ে করা সম্ভব নয়। এ ঘটনার পর তরুণী মামলার সিদ্ধান্ত নেন।

ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে জসিম উদ্দিন বলছেন, গত রোববার তার বিয়ে হয়েছে। এই খবরে তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হয়রানির কৌশল নিয়েছে। ওই মেয়েকে ব্যবহার করে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমলেশ চন্দ্র হালদার বলেন, প্রাথমিকভাবে অভিযোগ গ্রহণ করে তদন্ত করা হচ্ছে। এতে সতত্য পাওয়া গেলে অবশ্যই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.