কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে ভাঙচুরের ঘটনায় আটক চার

১৪

মোঃ আল-আমিন সরকার, ডেস্ক রিপোর্টঃ কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় দুইজনকে আগে আটক করা হয়েছিল। এরপরে তাদের মাধ্যমে আরও দু’জনকে আটক করা হয়। এ পর্যন্ত মোট চারজনকে আটক করা হয়েছে।

আজ রোববার দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সামনে একথা বলে নিশ্চিত করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এসময় ভাস্কর্য ভাঙচুরকারীদের আটকের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন স্থানে স্থাপিত ভাস্কর্যের নিরাপত্তা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সব ভাস্কর্যের নিরাপত্তার বিষটি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে। ভাস্কর্য ভাঙচুরকারীদের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে তদন্তের যাদের নাম বেরিয়ে আসবে সকলকে গ্রেপ্তার করা হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘আমরা ইতিমধ্যেই চারজনকে ধরে ফেলেছি। তাদের দুজন জড়িত ছিল এবং তাদের কথামতো আরও দুজনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠিনভাবে তৎপর রয়েছে। এসময় তিনি আরো বলেন কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্যের ঘটনার তদন্ত কাজ চলমান রয়েছে উক্ত তদন্তে যাদের নাম আসবে তাদের নামেই মামলা করা হবে। ’আজ রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ সময় আসাদুজ্জামান খান বিভিন্ন দেশের উদাহরণ দিয়ে আরো বলেন, পৃথিবীতে বিভিন্ন ইসলামিক দেশ রয়েছে। তাদের মধ্যে ‘অনেক ইসলামিক দেশে মুদ্রার মধ্যে বাদশাহদের ছবি রয়েছে। সৌদির বাদশাহর ছবি রয়েছে, ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানের ছবি রয়েছে, পাকিস্তানের কায়েদে আজমের ছবি রয়েছে। সেটা পকেটে নিয়ে আমরা ঘুরছি এতে কোনো সমস্যা হয় না। অথচ একটি ভাস্কর্য প্রজন্মের পর প্রজন্ম সাক্ষী হয়ে থাকবে, সেটা আমরা ধ্বংস করতে চাইছি।

সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় বিভিন্ন বাস্তবতার আলোকে সকলের সামনে পরিষ্কার করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আরো বলেন, আমরা বলছি ভাস্কর্য মানেই পূজা নয়; ভাস্কর্য মানেই তাঁকে ধরে রাখা। তাঁর যে অবদান দেশের প্রতি, জাতির প্রতি, সেটাকে হৃদয় দিয়ে ধারণ করা।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.