কবিতা: শূন্যতা

৫৬৭

লেখক: সাগর হাসান মুক্তার

আমি শূন্যতায় পেতেছি বুক,তুমি আসবে বলে।
অঝোরে ভিজিয়েছি চোখ,শুধু একটু ভালবাসবে বলে।
হৃদয়টাকে শীতলপাটি করে বিছিয়েছি বাতাসের গায়;
ধরেছি এক দুর্লভ প্রেমের বায়না!

তুমি কাছে এসে দেখে নিও ,
তুমিহীনা পৃথিবীর কোনো সুখ আমি চাইনা।
এ বুকের ভিতর যে সীমাহীন শূন্যতা নিয়ে ঘুড়ি
তা হয়তো মহাশূন্যকেও ছাড়িয়ে যাবে।

বেঁচে থাকার সকল উপাদান আমার কাছে থাকলেও,
একটু একটু করে মরে যাচ্ছি শুধু তোমার অভাবে।
আমি তোমায় নিয়ে জীবন সমুদ্র পাড়ি দিতে চেয়েছিলাম,
কিন্তু ভাঙ্গনের প্রলয়ী ঝড়ে ডুবে গেছি অতলে।

ভূপৃষ্ঠের উপর এমন অসুখী দ্বিতীয় কেউ হয়তো নেই,
যে কিনা অবহেলার আগুনে পুঁড়েও ভুলতে পারে নি।
জানিনা তোমাকে কেন এত বেশি ভালোবেসেছিলাম?
হয়তো হারিয়ে ফেলবো বলে।

এতোটা মায়ায় কেন বেঁধেছিলে বলো?
সারাজীবন এভাবে বুঝি ভাসাতে আঁখিজলে?
হৃদয়ের ধূলো জমা আয়নাটা বারবার মুছি,
অথচ কিছুতেই সেই প্রিয় মুখটা দেখা হয় না।

আসলে কারো শূন্যস্হান হয়তো পূরণ করা যায়,
কিন্তু তাঁর শূন্যতা কখনো পূরণ করা যায় না।

ছবি: মো:জাহাঙ্গীর আলম শান্ত।

0% LikesVS
100% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.