কবিতা- কষ্ট

১১

কবি মোঃসাইফুল ইসলাম শামীম(কৃষিবিদ)

কষ্ট হলো দীর্ঘনিঃশ্বাস,
আকাশ পানে চেয়ে,
বুকের ভেতর জমানো বিরহ,
আম্পান সিডর হয়ে আসে ধেয়ে৷

কষ্ট হলো কালো মেঘ,
নীল আকাশকে ঢেকে করে পর,
সেখানেও কষ্টের ছোঁয়া,
সুখকর দেখে বাঁধিতে দেয় না ঘর৷

কষ্ট হলো জ্বলন্ত সিগারেট,
দুই ঠোঁটের করাল গ্রাসে ফুঁকে ফুঁকে করে ছাঁই,
ধোঁয়া করে উড়ায় হাওয়ায়,
নির্যাসটুকু দীর্ঘশ্বাসে অন্তরে দেয় ঠাঁই৷

কষ্ট হলো নানান রং,
লাল নীল কালো পীত রং ও হয়,
জীবন যুদ্ধে মিশে কখনও কখনও,
সুখকে করে চিরতরে ক্ষয়৷

কষ্ট হলো বুক ফাটা কান্না,
নিরব আঁধারে রণিত হয় চিৎকার,
কেউ না শুনিলেও,
মাটি ইট পাথর গুলো শুনে কষ্টের হাহাকার৷

কষ্ট হলো গুপ্ত ঘাতক,
ক্ষয়ে ক্ষয়ে জীবন করে শেষ,
কষ্ট একটাই পথ রাখে খোলা,
দয়া মায়া ছেড়ে ধরাধামে ছাড়ে নিঃশেষ৷

কষ্ট হলো স্বচ্ছ জলে প্রস্তর ঢিল ছোড়া,
জলতরঙ্গে ভাসা কিনারায় ঘেঁষা জল,
পার্শ্বচাপে স্বপ্ন ভেঙ্গে,
কষ্টে কষ্টে হয়ে যায় অতল৷

কষ্ট হলো ধপাস করে ভেঙ্গে পড়া নদীর পাড়,
যেথায় বসতি গড়ে ছিল গত কাল,
কে শুনে কার আর্ত চিৎকার,
কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকতে হয় চিরকাল৷

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.