কবিতা-অন্তর্দাহ

১৪১

লেখক: সাগর হাসান মুক্তার।

তোমায় ভুলে যাব? কি যাব না?
এই নিয়ে এখন মনের সাথে যুদ্ধ চলে রোজ।

এই যুদ্ধে একবার আমি জিতি আরেক বার মন,
শত বেদনার বেড়াজাল ভেদ করেও রাখি তোমার খোঁজ।

তোমার চোখের একেক ফোঁটা জল,
আমার কাছে অনেক দামী,
এক এক তাজমহল।

নয়ন মেলে তোমায় না দেখলেও,
নয়ন বন্ধ করে তোমায় সর্বদাই দেখি।
ভুলে থাকার অভিপ্রায়ে আরো বেশি,
করে তোমাকে ভীষণ মনে রাখি।

কাছে যাওয়া আর দূরে থাকার অন্তর্দন্দে
প্রতিনিয়ত রক্তাক্ত হই আমি ও আমার মন।

কারো কাছেই কেউ হারতে চাইনা তবুও,
চিরতরে হারানোর ঘোর বিরোধী আমরা দুজন!

ভালোবাসা বুঝি এমনই হয়,
ভুলে গিয়েও ভুলে থাকা যায় না।
বুকের ভেতর কাউকে আজন্ম বয়ে বেড়ালেও
বুকের শূন্যতা দূর হয় না।

কাছে এসেছিলাম যখন প্রেম ছিল তখন বহুদূরে,
হৃদয়ের খুব কাছাকাছি হয়তো কখনোই প্রেম থাকেনা।

দূরে গেলে প্রেম বাড়ে,মায়া বাড়ে আবার দুঃখও বাড়ে
তাঁর সমানুপাতিক হারে;শুধু দূরত্ব দুজনকে কাছে রাখেনা।

তোমাকে ভুলে গেছি ভেবে যখন কিছুটা স্বাভাবিক হতে চাই,
স্মৃতির মহড়া সাজিয়ে মনটা তখন সামনে এসে দাঁড়ায়।

আমি ভালো আছি ভেবে যখনই নিজেকে স্বীকৃতি দেই,
খুব নিরবে জানায় এ মন তুমি ভালো নেই।

লাল-নীল, হলুদ-সবুজ কতো রকম কাপড়
আর জামা দিয়ে ঢেকে রাখি দেহ।

তবুও কেউ জানেনা এই জামার নিচে বুকের গভীরে
বিশাল এক অগ্নিশিখায় চলছে অন্তর্দাহ!

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.