ঐতিহাসিক গোড়ার মসজিদকে ঘিরে পর্যটকের ভীড়…

৩৪

আল- মামুন, ঝিনাইদহ।

ঐতিহাসিক এই গোড়ার মসজিদ। এটি ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলা শহর থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে বারোবাজার ইউনিয়নের বেলাট দৌলতপুর গ্রামে অবস্থিত।

ঐতিহাসিক এই মসজিদটি পঞ্চদশ শতাব্দীর রাজধানীখ্যাত শাহ মোহাম্মদাবাদে সুলতানি শাসনামলের স্থাপত্য শিল্পের এক অনন্য নিদর্শনা।

মসজিদটির পূর্বদিকে আছে পুকুর ও ওজু করার সুব্যবস্থা। রয়েছে একটি বড় ও তিনটি ছোট গম্বুজও। বারান্দাসহ মসজিদটি দেখতে বর্গাকৃতির।

প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ ১৯৮৩ সালে খননের পর গম্বুজের কেন্দ্রস্থল ২ ফুটের মত ভাঙা দেখতে পায়। একইসঙ্গে মসজিদের পাশে একটি কবরের সন্ধানও পাওয়া যায়।

কবরটি গোড়াই নামের এক দরবেশের বলে অনেকেরই ধারণা। তাঁর নামানুসারেই এই মসজিদের ‘গোড়ার মসজিদ’ নামকরন করা হয়।

মসজিদে পাঁচ ফুট প্রশস্ত দেয়াল আছে। পূর্বদিকে আছে তিনটি প্রবেশদ্বার। উত্তর ও দক্ষিণের দেয়ালে দুটি বড় ও দুটি ছোট প্রবেশপথ যা এখন জানালা হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে।

পশ্চিমের দেয়ালে তিনটি মেহরাব আছে। পশ্চিম দেয়ালে ৭-৮ ফুট লম্বা দুটি এবং উত্তর-দক্ষিণের দেয়ালে দুটি কালো পাথরের স্তম্ভ আছে।

মসজিদের দেওয়ালে পোড়ামাটির পাতা-ফুলে শোভিত শিকল, ঘণ্টাসহ বিভিন্ন নকশা আছে। বাইরের দেয়াল পুরোটাই পোড়ামাটির কারুকার্যে অলংকৃত। যা দেখে ভ্রমণপিপাসুদের অন্তরতৃষ্ণা আরো বহুগুণে বেড়ে যায়।

এখানে প্রতি শুক্রবার দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ বেড়াতে আসে। অনেকের কাছ থেকে কথা বলে জানতে পারা যায়, অনেকেই রোগ মুক্তির জন্য এই গোড়ার মসজিদে মানত করে এবং রোগ মুক্তিও হয়।
আমরা আরো দেখতে পাই প্রর্যটকদের অনেকেই জীবিত মোরগ-মুরগী ও ছাগল সহ ডাব, নারকেল, গাব, গাভীর দুধ ইত্যাদি দিয়ে থাকে।
এছাড়াও বাচ্চাদের মুখে ভাত সহ বিভিন্ন মানতের জন্য তাবারক হিসাবে গরীব-দুঃখীদের খাবার দিয়ে থাকে।

এই গোড়ার মসজিদে পুরুষের তুলনায় নারী দর্শনার্থীর সংখ্যাই বেশি। তবে নারী ও পুরুষদের নামাজের জন্য রয়েছে পৃথক স্থান,রয়েছে উঁচু প্রাচীরও।

এখানে আরো একটি বিষয় দেখতে পাওয়া যায়,সকলে রোগ মুক্তির জন্য বোতলে তৈল ও পানি রেখে দেয় এবং তাদের ধারণা কোনো এক পীর সেগুলোকে ঝাড়-ফুঁক করে থাকে।

ঐতিহাসিক এ মসজিদে
দেশের যে কোনো স্থান থেকে ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলা শহরে পৌঁছতে হবে।

সেখান থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে বারোবাজার ইউনিয়ন এসে যেকোনো যানবাহন চালক কে বললেই নিয়ে যাবে গোড়ার মসজিদে।
মসজিদ টি বেলাট দৌলতপুর গ্রামে অবস্থিত ।

67% LikesVS
33% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.