এক মাস ধরে মেয়েকে খুঁজে পাচ্ছেন না অসহায় বাবা ।

১৯

 

মোঃ বায়জিদ হোসেন,কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি।প্রায় এক মাসে হতে চলল খুলনার ফুলতলা উপজেলার দামোদর গ্রামের শ্বশুর বাড়ি থেকে নিখোঁজ গৃহবধূ আসমা বেগম ও তাঁর দুই কন্যা কে খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এরপর থেকে আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব, পাড়া-প্রতিবেশী, থানা-পুলিশ-হাসপাতাল—কোনো জায়গা বাকি নেই যেখানে তাকে খোঁজা হয়নি। কিন্তু কোথাও আসমা বেগম ও তাঁর দুই কন্যার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না।

নিখোঁজ আসমা বেগমের পিতা ও স্বামী আলাদা আলাদা ভাবে খুলনার ফুলতলা থানায় আসমা বেগম ও তাঁর কন্যাদের সন্ধান চেয়ে অভিযোগ করেছে।নিখোঁজের পর দেরিতে জানানোয় থানা হতে জিডি না নিয়ে এ বিষয়ে অভিযোগ নিয়েছে খুলনার ফুলতলা থানা।

নিখোঁজ আসমা বেগমের পিতা মো.শাহাবাজ শেখ কান্না জরিত কণ্ঠে মঙ্গলবার দুপুরে কয়রা সাংবাদিক ফোরামের অফিসে সংবাদ সম্মেলনে জানান,মেয়ে ও নাতনীদের গত এক মাসের বেসি সময় ধরে খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।শুনেছি জামাইয়ের সাথে রাগ করে নাকি বাড়ি হতে চলে গেছে।বিষয়টি ১৮ নভেম্বর মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আমার জামাই আমাকে জানায় আমার মেয়ে তার সংসার থেকে বাড়ির কাউকে কিছু না বলে চলে গিয়েছি।আমি আমার আত্মীয় স্বজন সব জায়গায় মেয়ে ও নাতিদের খোঁজ করেছি, কিন্তু তাদের খোঁজ পাচ্ছি না।থানায় জিডি করতে গেছে ঘটনার সময় দেরি হয়ে যাওয়া জিডি না নেওয়ায় অভিযোগ করেছি। মেয়ে ও নাতিদের চিন্তায় আমার স্ত্রী অসুস্থ হয়ে বিছানায়।

সংবাদ সম্মেলনে নিখোঁজ আসমা বেগমের পিতা মো.শাহাবাজ হোসেন আরো বলেন,আমার মেয়েটা শ্বশুর বাড়ি হতে চলে গেছে শুনলাম অথচ এত দিন হলো ফিরে আসছে না।যা নিয়ে আমরা খুব দুশ্চিন্তায় আছি।আমরা তাদের খোঁজ পেতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সহ সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.