ঈদের পর লকডাউন নিয়ে বিজিএমইএ এর জরুরি নির্দেশনা

১,১১৪

মেহেদী হাসান সজীব, ডেস্ক রিপোর্টঃ

দেশে করোনা সংক্রমণ ব্যাপক আকারে বৃদ্ধি পাওয়ায় আগামী ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। এই লকডাউনে সরকার সকল ধরনের শিল্প কারখানা বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু গার্মেন্টস মালিকদের সব সংগঠন গুলোই এই বন্ধের সিদ্ধান্তে রাজি নয়। এরই মধ্যে তারা সরকারের সাথে দফায় দফায় আলোচনা করলেও সরকার তাদের সিদ্ধান্তে অটল থাকে। এই পরিস্থিতির মধ্যে বিজিএমইএ গতকাল নতুন করে একটি নিদর্শনা দিয়েছে। সে নির্দেশনায় বলা হয়েছে, লকডাউন চলাকালীন সময়ে বিজিএমইএ ঢাকা/চট্রগ্রাম অফিস ভার্চুয়ালী পরিচালিত হবে। তবে জরুরি প্রয়োজনে মৌখিক নির্দেশে অফিসে স্বশরীরে উপস্থিত থাকতেও হবে। বিজিএমইএ এর সকল কর্মকর্তা/কর্মচারীদের লকডাউন চলাকালে সার্বক্ষণিক মোবাইল চালু রাখা সহ ই-মেইল , হোয়াটসঅ্যাপ/ইমো চালু রাখিতে হবে। ঘোষিত লকডাউনে কোনোভাবেই কর্মস্থল ত্যাগ করা যাবেনা।

লকডাউন চলাকালে শাখা প্রধানদের যে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে-
ক/ ফিজিক্যালি দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় জনবল প্রস্তুত রাখবেন এবং প্রয়োজনীয় নিদের্শনা দিবেন।
খ/ নিয়মিত ইমেইল চেক করবেন এবং হোয়াটসঅ্যাপে অনলাইনে থাকবেন।
গ/ নিজ নিজ শাখার সেবা কার্যক্রম যেন কোনোভাবে ব্যাহত না হয় নিশ্চিত করবেন।
ঘ/ ম্যানেজমেন্টের চাহিদা মোতাবেক যেকোনো তথ্য সার্বক্ষণিক সরবরাহ করবেন।

এ আদেশ শুধুমাত্র সরকার ঘোষিত লকডাউন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। তবে উল্লেখ্য যে, ০১ আগস্ট ২০২১ হতে তৈরি পোশাক কারখানা খোলার প্রস্তুতি গ্রহণ করার জন্য বলা হয়েছে। সুতরাং কারখানা খোলার দিন হতে বিজিএমইএ অফিস ও খোলা থাকবে। সকলকে সেভাবে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।
আরও উল্লেখ্যে, গতকাল সোমবার ১৯ জুলাই বিজিএমইএ এর মহাসচিব মোঃ ফয়জুর রহমান সাক্ষরিত নির্দেশনাবলিতে এমন অফিস আদেশ দেওয়া হয়েছে।

100% LikesVS
0% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.