আমাকে আল্লাহ যতদিন বেঁচিয়ে রাখে ততদিন, কোন নলছিটিবাসীর কাছ থেকে কেউ বিচ্ছিন্ন করতে পারবেনা-কে,এম মাসুদ খান

রিয়াজ খান,স্টাফ রিপোর্টারঃ মহামান্য সুপ্রীমকোর্টের ফুল বেঞ্চ ঝালকাঠির নলছিটি পৌরসভায় নির্বাচনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কেএম মাসুদ খানের প্রার্থীতা বহাল রাখার নির্দেশ দেয়ায় তিনি ভোটের মাঠে ফিরে এসেছেন।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হাসেনের নেতৃত্বে ৪ বিচারপতির সমন্বয় গঠিত সুপ্রীমকোর্টের আপিল বিভাগের ফুলবেঞ্চ আজ মঙ্গলবার (২৬জানুয়ারী) এ আদেশ দেয়ায় বিকালেই তিনি নলছিটির নির্বাচনী মাঠে নেমেছেন।

মেয়র প্রার্থী কে.এম মাসুদ খানের পক্ষে সুপ্রীমকোর্টের শুনানীতে অংশগ্রহন করেন সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিষ্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

মেয়র প্রার্থী কে.এম মাসুদ খান সাংবাদিকদের জানান, নলছিটি পৌরসভায় নির্বাচনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসাবে তিনি মনোনয়নপত্র দাখিল করলে গত ৩ জানুয়ারী যাচাই-বাছাইকালে রির্টানিং কর্মকর্তা জেলা নির্বাচন অফিসার অহিদুজ্জামান মুন্সি তথ্য গোপনের অভিযোগে তার প্রার্থীতা বাতিল ঘোষনা করেন।

গত ৭ জানুয়ারী উক্ত আদেশের বিরুদ্ধে জেলা নির্বাচন কমিশনে তিনি আপিল করলে জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জোহর আলী উক্ত আদেশ বহাল রেখে আপিল খারিজ করে দেন।

এ অবস্থায় নির্বাচন কমিশনের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করলে গত ১৩ জানুয়ারী মহামান্য হাইকোর্টে বিচারপতি মোঃ খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মাহমুদ হাসান তালুকদারের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ মাসুদ খানের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষনা করে প্রতীক বরাদ্দের নির্দেশ দেন।

গত ১৯ জানুয়ারী সতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মাসুদ খানকে নির্বাচনী প্রতীক মোবাইল মার্কা বিতরন করা হলেও একই দিন রাষ্ট্র পক্ষের আবেদনে সুপ্রীমকোর্টের চেম্বার জজ আদালত হাইকোর্টে আদেশকে ৮সপ্তাহের স্থাগিতাদেশ দিলে মাসুদ খানের নির্বাচনে অংশগ্রহন অনিশ্চিত হয়ে পড়ে।

লড়াকু মেয়র প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মাসুদ খান উক্ত আদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রীমকোর্টের ফুলবেঞ্চে আপিল আবেদন করলে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হাসেনের নেতৃত্বে ৪ বিচারপতির সমন্বয় ফুলবেঞ্চ তার প্রার্থীতা বহালাদেশ প্রদান করেন। এ আদেশের প্রেক্ষিতে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কেএম মাসুদ খানকে নির্বাচনী মাঠ থেকে হটানোর সকল চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে গেছে বলে তার কর্মীসমর্থকরা জানায়।

এ ব্যাপারে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মোঃ মাসুদ খান তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, রিটানিং কর্মকর্তা পরিকল্পিত ভাবে কোন বিশেষ মহলের ইঙ্গিতে অন্যায় ভাবে আমার মনোনয়ন বাতিল করেছিল একজন প্রার্থীকে বিনাভোটে বিজয়ী করা চেষ্টা চালিয়েছে। তবে আমি নলছিটিবাসীর ভোটের অধিকার আদায়ের জন্য মহামান্য সুপ্রীমকোর্টের আশ্রয় নিলে ন্যায় বিচারে আমি প্রার্থীতা ফিরে পেয়েছি। আমাকে আল্লাহ যতোদিন বাচিয়ে রাখে ততোদিন, কোন অপশক্তি নলছিটিবাসীর কাছ থেকে আমাকে বিচ্ছিন্ন করতে পারবেনা।।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.