অবশেষে বহুল আলোচিত কাঠের সেতু নির্মাণ কাজ শেষ

২৭

ইয়াছিন আলী,উপজেলা প্রতিনিধি,সরিষাবাড়ী,জামালপুরঃ
ভোগান্তি থেকে রক্ষা পেতে জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে চর রৌহা গ্রামে ঝারকাটা নদীর ওপর গ্রামবাসীর স্বেচ্ছাশ্রমে ও নিজেদের অর্থায়নে কাঠের সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। কাঠের সেতুটির নির্মিত হওয়ার ফলে ১৫টি গ্রামের মানুষ ভোগান্তি থেকে রক্ষা পাবে।

কাঠের সেতুটির দৈর্ঘ্য ৩১০ ফুট ও প্রস্থ ৮ ফুট। কাঠের সেতুটি নির্মাণ করতে ব্যয় হয়েছেপ্রায় ১০/১২ লাখ টাকা। ১৫ জানুয়ারির মধ্যে সেতুটির নির্মাণকাজ শেষ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের চর রৌহা গ্রামের ভেতর দিয়ে ঝারকাটা নদী প্রবাহিত হয়েছে। চর রৌহা, ছাতারিয়া, চর সরিষাবাড়ী, নান্দিনা, বাঘমারা, আদ্রা, চুনিয়াপটল, জামিরা, নান্দিনা, দীঘলকান্দি, কোনারপাড়া, মাজারিয়া, সেংগুরিয়া, আতামারি ও সিধুলি—এই ১৫ গ্রামের মানুষকে বাঁশের সাঁকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে ঝারকাটা নদী পার হতে হয়। ফলে ভোগান্তি তাদের নিত্যদিনের সঙ্গী।

সাতপোয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও চর রৌহা গ্রামের বাসিন্দা রেজাইল করিম বলেন, ২০১৩ সালে স্কুলে যাওয়ার সময় নৌকা ডুবে দুই শিক্ষার্থী দ্বিতীয় শ্রেণির অন্তর (৭) ও তৃতীয় শ্রেণির আনিছ (৮) মারা যায়।

এরপর গ্রামবাসীকে নিয়ে বছরের পর বছর বসে ঝারকাটা শাখা নদীর ওপর কাঠের সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। গত ১ নভেম্বর গ্রামবাসীর সঙ্গে বৈঠকে বসে তিনি স্বেচ্ছাশ্রমে ও নিজেদের অর্থে একটি কাঠের সেতু নির্মাণের প্রস্তাব করেন। তাঁর প্রস্তাবে গ্রামবাসী সেতু নির্মাণে সাড়া দেন। গত ৭ নভেম্বর সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। প্রতিদিন গ্রামের নারী-পুরুষ পালা করে কাজ করায় কাজটি দ্রুত শেষ হয়েছে।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.