অজ্ঞাত লাশ কি ফকিরহাটের আলমগীরের?

১৬

রাজু মাহমুদ,মঠবাড়িয়া উপজেলা প্রতিনিধি : পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায় অজ্ঞাত এক যুবকের গলিত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। রোববার (১১ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার মিরুখালী ইউনিয়নের বাঁশবুনিয়া গ্রাম থেকে ওই মরদেহটি উদ্ধার করেন। এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করে লাশের ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে প্রেরণ করেছে। এদিকে, থানা পুলিশ পরিবারের বরাত দিয়ে জানিয়েছে অজ্ঞাত ওই লাশটি ফকিরহাটের অপহৃত আলমগীরের।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে স্থানীয়রা ওই গ্রামের ইউসুফ হাওলাদারের নির্মানাধীন বিল্ডিং এ ওই মরদেহটি দেখতে পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দেন। তার পড়নে কালো গেঞ্জি ও ট্রাউজার দিয়ে পা বাঁধা ওই ভবনের মেঝেতে বালু চাপা দেয়া অবস্থায় পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে তার বয়স ৩০ বছর হবে, গত ৫/৬ দিন আগে দুবৃর্ত্তরা তাকে হত্যা করে সেখানে ফেলে রেখে গেছে। মরদেহটির ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যার রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান মিলু নিহতের যুবকের বড় ভাই হুমায়ুন কবিরের বর্ণনা দিয়ে জানান, অজ্ঞাত যুবক পার্শ্ববর্তী বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার বালিয়া কান্দা গ্রামের হারুন অর রশিদের পুত্র আলমগীর হোসেন (৩০) এর। অটোচালক আলমগীর গত ৪ এপ্রিল’২১ বাড়ী থেকে নিঁখোজ হয়। এ মর্মে স্বজনরা ফকিরহাট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী ও পরে ওই থানায় গত ৮ এপ্রিল’২১ একটি অপহরণ মামলাও দায়ের করে। অজ্ঞাত যুবকের লাশটি তার ভাই আলমগীর বলে পুলিশের কাছে দাবী করেছে হুমায়ুন।

50% LikesVS
50% Dislikes
Leave A Reply

Your email address will not be published.